ঘরে ফিরল এয়ার ইন্ডিয়া! ৬৮ বছর পর এয়ার ইন্ডিয়া কিনে নিল টাটা সন্স

ঘরে ফিরল এয়ার ইন্ডিয়া! ৬৮ বছর পর এয়ার ইন্ডিয়া কিনে নিল টাটা সন্স
ঘরে ফিরল এয়ার ইন্ডিয়া! ৬৮ বছর পর এয়ার ইন্ডিয়া কিনে নিল টাটা সন্স

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ সময় লাগল ৬৮ বছর। এতো দীর্ঘ সময় লাগলেও, শেষ পর্যন্ত ঘরে ফিরল এয়ার ইন্ডিয়া। এয়ার ইন্ডিয়াকে কিনে নিল টাটা সন্স। জল্পনা আগেই ছিল। অবশেষ সেই জল্পনাই সত্যি প্রমাণিত হল। কয়েক দিন আগেই শোনা গিয়েছিল, জাতীয় বিমান সংস্থা কিনবে টাটারা। যদিও পরে সেই জল্পনা উড়িয়ে দেয় কেন্দ্রের মোদী সরকার। অবশেষে শুক্রবার কেন্দ্র সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ১৮ হাজার কোটি টাকায় এয়ার ইন্ডিয়া কিনে নিয়েছে টাটা গোষ্ঠী।

এয়ার ইন্ডিয়া অধিগ্রহণের জন্য ১৮ হাজার কোটি টাকার নিলাম-দর দিয়েছিল টাটারা। টাটার দরপত্র সবথেকে হওয়ায়, কাজেই এবার এয়ার ইন্ডিয়া ফিরছে পুরনো মালিকের হাতেই। এর সঙ্গে এয়ার ইন্ডিয়ার ও স্বল্প ভাড়ার এয়ার ইন্ডিয়া এক্সপ্রেসের ১০০ শতাংশ অংশীদারিত্বের পাশাপাশি এয়ার ইন্ডিয়া স্যাটস এয়ারপোর্ট সার্ভিসেস প্রাইভেট লিমিটেডের ৫০ শতাংশ শেয়ারের মালিকানা পেল টাটা।

জানা গিয়েছে, এয়ার ইন্ডিয়ার কেনার জন্য প্রস্তাবমূল্য দিয়েছিল টাটা সন্স ও স্পাইসজেটের চেয়ারম্যান অজয় সিং। গত মাসেই খবর ছড়িয়েছিল, এয়ার ইন্ডিয়া টাটা সন্সের হাতেই যাচ্ছে। সেই সময় এই খবর অস্বীকার করেছিলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী পীযূষ গোয়েল। পীযূষ গোয়েল অস্বীকার করলেও, এয়ার ইন্ডিয়া ফের একবার টাটার হাতেই গেল।

উল্লেখ্য, ২০১৭ সাল থেকেই এই রাষ্ট্রায়ত্ত বিমান সংস্থাটি বিক্রির চেষ্টা চালাচ্ছিল কেন্দ্র সরকার। ২০১৮ সালে ৭৬ শতাংশ অংশীদারিত্ব বিক্রির সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল। কিন্তু বিশাল ঋণের কারণে কেউ আগ্রহী হয়নি। এরপর ২০২০ সালের ডিসেম্বরে ফের দরপত্র চাওয়া হয়। দ্বিতীয়বার চারটি সংস্থা এ ব্যাপারে এগিয়ে আসে। তবে, জানা গিয়েছে চূড়ান্ত বিড দিয়েছিলেন অজয় সিং ও টাটারা।

এদিকে রতন টাটা টুইটারে পোস্ট করে লেখেন, ‘পুনরায় স্বাগত এয়ার ইন্ডিয়া।’ উল্লেখ্য, স্বাধীনতার আগে ১৯৩২ সালে টাটার হাত ধরে শুরু হয় টাটা এয়ারলাইন্স। পরবর্তী সময়ে ১৯৪৬ সালে নাম বদলে রাখা হয় এয়ার ইন্ডিয়া। ১৯৫৩ সালে টাটার হাত থেকে এই উড়ানকে অধিগ্রহণ করে কেন্দ্র। যদিও ১৯৭৭ সাল পর্যন্ত সংস্থার চেয়ারম্যান হিসাবে কাজ করেন জে আর ডি টাটা। টাটারাই ফের মালিকানা পাওয়ায় একটি বৃত্তই যেন সম্পূর্ণ হল।

দেনার দায়ে ধুঁকছিল এই জাতীয় উড়ান সংস্থা। বাজারে এই মুহূর্তে তাদের ঋণের পরিমাণ ৪৩ হাজার কোটি টাকা। সরকার আগেই ঘোষণা করেছিল, এয়ার ইন্ডিয়ার ১০০ শতাংশ বিলগ্নিকরণ হবে। ৫০ শতাংশ অংশীদারিত্ব বিক্রি করা হবে এই সংস্থার আওতায় থাকা বিমান ওঠা-নামা সংক্রান্ত সংস্থার। এছাড়াও বিক্রি করা হবে এয়ার ইন্ডিয়ার মুম্বই ও দিল্লির বাড়িও। এখনও পর্যন্ত ৪ হাজার ৪০০ অভ্যন্তরীণ উড়ান ও ১ হাজার ৮০০ আন্তর্জাতিক বিমান চালায় এয়ার ইন্ডিয়া।