গত বছরের বাজেট বহির্ভূত খরচের হিসেব দিলেন মুখ্যমন্ত্রী

গত বছরের বাজেট বহির্ভূত খরচের হিসেব দিলেন মুখ্যমন্ত্রী / Image Source: Facebook Post By @MamataBanerjeeOfficial
গত বছরের বাজেট বহির্ভূত খরচের হিসেব দিলেন মুখ্যমন্ত্রী / Image Source: Facebook Post By @MamataBanerjeeOfficial

সোমবার ছিল বিধানসভার বাজেট অধিবেশনের শেষদিন। এদিন গত বছরের বাজেট বহির্ভূত খরচের হিসেব দিলেন মুখ্যমন্ত্রী।এবার আমফান, করোনা-সহ রাজ্যের পরিকাঠামোগত কাজের জন্য বাজেটের বাইরে ২৫ হাজার কোটি টাকা খরচ হয়েছে বলে জানান তিনি।

মুখ্যমন্ত্রী আরও জানান, ঋণের বোঝা কমে রাজ্যে কর আদায় বেড়েছে। সেই তথ্য এদিন তুলে ধরেন তিনি। মুখ্যমন্ত্রীর দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, ২০১০-১১ আর্থিক বর্ষে আদায় করা করের পরিমাণ ছিল ২১ হাজার ১২৮ কোটি টাকা। ২০২১-২২ আর্থিক বর্ষে কর আদায় বেড়ে হয়েছে ৭৫ হাজার ৪১৬ কোটি টাকা। সেখানে ২০১০-১১ তে ঋণের অনুপাত ছিল ৪০.১০ শতাংশ। ২০২১-২২ এ হয়েছে ৩৪.৮১ শতাংশ। ৬ শতাংশ কমেছে রাজ্যে ঋণের পরিমাণ।

মোদী সরকারকে বিঁধে মমতা বলেন, “কেন্দ্রে এত নির্দয় সরকার দেখিনি। রাজ্যের প্রাপ্য কিছুই দিচ্ছে না। এখন নির্বাচন বলে বাংলা ওদের টার্গেট। ভোটের সময় বাংলা প্রীতি হয়েছে।” নাম না করে জেপি নাড্ডাকে কটাক্ষও করেন তিনি। বলেন, “বিবেকানন্দকে ঠাকুর বানিয়েছে।” চড়া সুরে আক্রমণ করেন প্রধানমন্ত্রীকেও। বলেন, “কোভিডে ১০ মাস পর ঘর থেকে বেরলেন। এখানে এসে বলে গেলেন আগাম ১ হাজার কোটি দিয়ে যাচ্ছি। তাও বিপর্যয় মোকাবিলা তহবিলের প্রাপ্য টাকা এটা।”

হলদিয়ার সভামঞ্চ থেকে আমফান পরবর্তী রাজ্যের পরিস্থিতি নিয়ে প্রধানমন্ত্রী এখানকার সরকারের সমালোচনা করেছেন।পরিস্থিতি মোকাবিলায় কেন্দ্র রাজ্যকে সাহায্য করেছে বলেও দাবি করেছিলেন তিনি। তারই পালটা এদিন মমতার দাবি, “আমফানের কাজ করতে গিয়ে কোথাও একটা সমস্যা হয়েছিল। কার না হয়? সব সমস্যার সমাধান হয়ে গিয়েছে।”

আরো পড়ুনঃ   স্বামীর অবৈধ সম্পর্কের প্রতিবাদ করায়, শ্বাসরোধ করে গৃহবধূকে খুন! অভিযোগ স্বামী-সহ শ্বশুরবাড়ির বিরুদ্ধে