অমানবিক দৃশ্য! আশি বছর বয়সী বৃদ্ধা মাকে মারধর করে বাড়ি ছাড়া করলেন ছেলে ও পুত্রবধূ

অমানবিক দৃশ্য! আশি বছর বয়সী বৃদ্ধা মাকে মারধর করে বাড়ি ছাড়া করলেন ছেলে ও পুত্রবধূ
অমানবিক দৃশ্য! আশি বছর বয়সী বৃদ্ধা মাকে মারধর করে বাড়ি ছাড়া করলেন ছেলে ও পুত্রবধূ / নিজস্ব ছবি

নিজস্ব প্রতিবেদনঃ নদিয়াঃ মলয় দেঃ আনুমানিক আশি বছর বয়সী এক বৃদ্ধাকে মারধর করে বাড়ি থেকে বের করে দেওয়ার অভিযোগ উঠল বৃদ্ধার ছেলে, বৌমা সহ তাঁর পরিবারের বিরুদ্ধে। জানা যায়, নদীয়া শান্তিপুর থানার অন্তর্গত বেলঘড়িয়া এক নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েতের বয়রা এলাকার বাসিন্দা বুলু বালা সরকার নামের ওই বৃদ্ধা ভিক্ষাবৃত্তি করে নিজের পেট চালাতেন।

ইদানিংকালে বয়সের ভারে ও বার্ধক্যজনিত কারণে তিনি আর বাড়ি বাড়ি ঘুরে ভিক্ষা করতে পারেতেন না। যার কারণে সম্পূর্ণ ভাবেই বৃদ্ধার ভরণ-পোষণের দায়িত্ব পড়ে যায় তাঁর ছেলের পরিবারের উপর। বৃদ্ধার দায়িত্ব নিতে নারাজ পেশায় কৃষিজীবী ছেলে মনোমথো সরকার ও স্ত্রী। এরপর থেকেই তাঁর ওপর শারীরিক ও মানসিক অত্যাচার করতে শুরু করে ছেলে ও ছেলের বউ। তাদের অত্যাচার সহ্য করতে না পেরে বাধ্য হয়েই ঘর ছাড়েন অসহায় ওই বৃদ্ধা। এরপর ঘুরতে ঘুরতে চলে আসেন হবিবপুর তাঁরাপুর এলাকায়।

প্রসঙ্গত দিন কয়েক আগে সরস্বতী বিশ্বাস নামের তাঁরাপুর এলাকার বাসিন্দা ওই বৃদ্ধার দুরবস্থা দেখে তাকে নিজের বাড়িতে আশ্রয় দেন। বর্তমানে তিনি সরস্বতী দেবীর আশ্রয়ে রয়েছেন। অসহায় ওই বৃদ্ধা নিখোঁজ থাকলেও আজ পর্যন্তও মায়ের খোঁজ খবর নেয়নি তাঁর ছেলে বৌমা এই অভিযোগও করেন সরস্বতী দেবী। বিষয়টি স্থানীয়দের পক্ষ থেকে জানানো হয় শান্তিপুর থানায়।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.