বলিউডে একসময়ের প্রতিদ্বন্দ্বী শ্রীদেবী ও জয়াপ্রদা! পুরোনো ছবি শেয়ার হতেই আবেগে ভাসলেন নেটজনতা

বলিউডে একসময়ের প্রতিদ্বন্দ্বী শ্রীদেবী ও জয়াপ্রদা! পুরোনো ছবি শেয়ার হতেই আবেগে ভাসলেন নেটজনতা / Image Source- Instagrammed By @perniaq
বলিউডে একসময়ের প্রতিদ্বন্দ্বী শ্রীদেবী ও জয়াপ্রদা! পুরোনো ছবি শেয়ার হতেই আবেগে ভাসলেন নেটজনতা / Image Source- Instagrammed By @perniaq

দেশে আছড়ে পড়েছে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ। ফলে ফের চোখ রাঙাচ্ছে করোনা। এই অবস্থায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে বেশ কয়েকটি বিধিনিষেধ জারি করেছে সরকার। বিশেষ করে টিকাকরণ ও করোনা নিয়ম বিধি মানার ওপরেই জোর দিচ্ছে কেন্দ্র। পাশাপাশি মাস্ক ব্যবহারও বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। এর মধ্যেই আবার মহারাষ্ট্রে সপ্তাহান্তে নতুন করে জারি হয়েছে ‘লকডাউন’। পাশাপাশি সন্ধ্যে ৮টা থেকে সকাল ৭টার ‘নাইট কার্ফিউ’ও জারি। ফলে, সাধারণ মানুষের অবস্থাও বেশ শোচনীয়।

এই পরিস্থিতিতে মানুষের মন-মেজাজ একটু ফুরফুরে করতে নেটমাধ্যমে একটি ছবি শেয়ার করলেন সেলিব্রিটি স্টাইলিস্ট ও উদ্যোক্তা পার্নিয়া কুরেশি। বলিউডের অন্যতম দুই তারকা অভিনেত্রী শ্রীদেবী এবং জয়াপ্রদার পুরোনো একটি সাদা-কালো ছবি শেয়ার করেছেন পার্নিয়া। তার ক্যাপশনের মাধ্যমেই জনগণের মধ্যে একটু মজা ছড়িয়ে দিলেন তিনি।

ছবিটিতে দেখা যাচ্ছে, দুই অভিনেত্রীর মুখ খোলা। চিবুকে হাত দিয়ে বসে রয়েছেন। যেন কোনও কিছুর জন্য তাঁরা বেশ অবাক! এই ছবিরই ক্যাপশনে পার্নিয়া লিখেছেন, ‘বাস্তবে মহারাষ্ট্রের লকডাউন খানিকটা এরকমই’! অর্থাৎ লকডাউনের মতো পরিস্থিতি দেখেই যেন দুই অভিনেত্রী অবাক হয়েছেন। এই ছবিই এখন রীতিমতো ভাইরাল সোশ্যাল মিডিয়ায়।

পার্নিয়া কুরেশি ছবিটি শেয়ার করা মাত্রই নেটবাসিন্দাদের কাছে তা জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। লাইকের পাশাপাশি মন্তব্য বিভাগটিও ভরে উঠেছে নানা মজাদার মন্তব্যে। পাশাপাশি দুই প্রতিদ্বন্দ্বী অভিনেত্রীর পাশাপাশি বসে তোলা এই ছবি দেখে আবেগেও ভেসেছেন নেটজনতা। পার্নিয়াকে ধন্যবাদও জানিয়েছেন ছবিটি তাঁদের সঙ্গে ভাগ করে নেওয়ার জন্য।

প্রসঙ্গত, ছবিটি তোলা হয়েছিল ১৯৮৪ সালের ‘তোফা’ ছবির সেটে। সেই সময় শ্রীদেবী এবং জয়াপ্রদা, দুই অভিনেত্রীই অভিনয়ের দিক দিয়ে একে অপরের প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন। এমনকি সেটে শ্যুটিংয়ের ফাঁকে একে অপরের দিকে তাকাতেন না পর্যন্ত। তাই স্বাভাবিকভাবেই এই দুই অভিনেত্রীর একসঙ্গে তোলা ছবি দেখে খুশি বাঁধ মানেনি নেটজনতার।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.