কোনও ভাবেই একসঙ্গে সম্ভব নয় তিনদফার নির্বাচন! কারন জানিয়ে ব্যাখা দিল কমিশন

কোনও ভাবেই একসঙ্গে সম্ভব নয় তিনদফার নির্বাচন! কারন জানিয়ে ব্যাখা দিল কমিশন
কোনও ভাবেই একসঙ্গে সম্ভব নয় তিনদফার নির্বাচন! কারন জানিয়ে ব্যাখা দিল কমিশন

কোনভাবেই বাকি তিন দফার ভোট এক সঙ্গে করানো সম্ভব নয়। চিঠি দিয়ে স্পষ্ট জানিয়ে দিল নির্বাচন কমিশন। তিন দফার ভোট কেন একসঙ্গে করানোর স্পষ্ট নয় চিঠিতে সেই ব্যাখ্যাও দিয়েছে কমিশন।

রাজ্যে যে হারে করোনা সংক্রমণ বাড়ছে তাতে বাকি দফার ভোট গুলি একসঙ্গে করানোর জন্য নির্বাচন কমিশনের বারবার দাবি জানিয়েছে তৃণমূল। অন্যদিকে প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরী বাকি তিন দফার নির্বাচন স্থগিত রাখার আরজি করেছিলেন নির্বাচন কমিশনের কাছে। কিন্তু দিল্লি থেকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে পূর্বনির্ধারিত সূচি অনুযায়ী ৮ দফা ধরেই হবে ভোট প্রক্রিয়া।

ইতিমধ্যেই করোনা পরিস্থিতি ভয়াবহ হয়ে উঠতেই সর্বদলীয় বৈঠক রেখেছিল নির্বাচন কমিশন। সেই বৈঠকে কোভিড বিধি মেনে কিভাবে প্রচার করা যায় তা নিয়ে আলোচনা হলেও বাকি টাকা ভোট কোনভাবেই একদফায় করানো যাবে না বলেই জানানো হয়েছিল ওই বৈঠকে। যদিও বিজেপি বারবার যেমন তিন দফায় বাকি ভোট রয়েছে তেমনভাবেই ভোট দেওয়ার পক্ষে সওয়াল করেছিল।

এদিন নির্বাচন কমিশনের তরফ এ চিঠি দিয়ে ব্যাখ্যা করে জানানো হয়েছে, ২০১৬ সালে ৭৭ দিন ধরে ভোট প্রক্রিয়া চলেছিল। এবারে তা কমিয়ে ৬৬ দিন করা হয়েছে। কারণে বুথের সংখ্যা ৩২শতাংশ বাড়ানো হয়েছে। এছাড়াও কমিশনের তরফ এ জানানো হয়েছে তাদের সীমাবদ্ধতা রয়েছে কিছু ক্ষেত্রে। জনপ্রতিনিধিত্ব আইন অনুযায়ী প্রত্যেক দফা ভোটের আগে আলাদা করে বিজ্ঞপ্তি জারি করতে হয় কমিশনকে। এর পর ১৪ দিন সময় দিতে হয়। কিন্তু তৃণমূলের দাবি অনুযায়ী বাকি তিন দফার ভোট একসঙ্গে করতে গেলে সেই শর্তের খেলাপ করা হবে। এছাড়াও বাকি তিন দফার ভোট একসঙ্গে করানোর জন্য যে পরিমাণ আগাম ব্যবস্থা নেওয়া প্রয়োজন তা হঠাৎ করে নেওয়া সম্ভব নয়। অতএব এর থেকে পরিষ্কার বাকি তিন দফার নির্বাচনে পূর্ব নির্ধারিত সূচি অনুযায়ী আলাদাভাবেই হবে।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.