৫ লক্ষ টাকার জরিমানা দিয়ে নারাজ! শীর্ষ আদালতের দ্বারস্থ হতে পারেন মমতা

৫ লক্ষ টাকার জরিমানা দিয়ে নারাজ! শীর্ষ আদালতের দ্বারস্থ হতে পারেন মমতা
৫ লক্ষ টাকার জরিমানা দিয়ে নারাজ! শীর্ষ আদালতের দ্বারস্থ হতে পারেন মমতা

বিচার ব্যবস্থাকে কলুষিত করার অভিযোগে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ৫ লক্ষ টাকার জরিমানা করেছে কলকাতা হাইকোর্ট।তবে এই জরিমানার অর্থ দিতে নারাজ মুখ্যমন্ত্রী। তাই জরিমানার নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ করে শীর্ষ আদালতের যেতে পারেন তিনি। সূত্রের খবর তেমনটাই।

বিজেপির সঙ্গে ঘনিষ্ঠ যোগ আছে বলে নন্দীগ্রাম মামলার বিচারপতি কৌশিক চন্দকে সরে দাঁড়ানোর জন্য বারবার দাবি জানিয়েছিল তৃণমূল। এই একই দাবি জানিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের আইনজীবী চিঠিও দিয়েছিলেন এই বিচারপতিকে। এর পরেই বুধবার বেলা বারোটা নাগাদ মামলা শুরু হতেই নিজেই সরে দাঁড়ালেন কৌশিক চন্দ। এদিন বেলা বারোটা নাগাদ এই কথা ঘোষণা করেন বিচারপতি। এরপর নন্দীগ্রাম মামলা কোন এজলাসে যাবে, সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবেন ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি রাজেশ বিন্দল।

তবে মামলা থেকে সরে দাঁড়ানোর আগেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে পাঁচ লাখ টাকার জরিমানার রায় শোনান তিনি।রাজ্য বার কাউন্সিলের জমা দিতে হবে এই জরিমানার অর্থ। কোভিড চিকিৎসায় এই অর্থ খরচ হবে বলেও জানানো হয়। যদিও জরিমানা নিয়ে অসন্তুষ্ট শাসক দল। এই ঘটনা লজ্জাজনক বলেই দাবি করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্বাচনী এজেন্ট শেখ সুফিয়ান। এই নিয়ে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হবেন বলেও জানান তিনি।

এরপরেই এই নির্দেশের বিরোধিতা করে সর্বোচ্চ আদালতে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। ইতিমধ্যেই এই বিষয়টি নিয়ে একাধিক আইনজীবীদের সঙ্গে কথা হয়েছে। তাঁদের পরামর্শ মতই এবার জরিমানার বিষয়টি নিয়ে শীর্ষ আদালতে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে।