অবিবাহিত মেয়ের মাথায় আচমকাই সিঁদুর দেখে ক্ষিপ্ত মা! দিলেন চরম শাস্তি

অবিবাহিত মেয়ের মাথায় আচমকাই সিঁদুর দেখে ক্ষিপ্ত মা! দিলেন চরম শাস্তি
অবিবাহিত মেয়ের মাথায় আচমকাই সিঁদুর দেখে ক্ষিপ্ত মা! দিলেন চরম শাস্তি / প্রতীকী ছবি

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ নাবালিকা মেয়ের মাথায় আচমকাই সিঁদুর দেখে ক্ষিপ্ত হয়ে গেলেন। এতোটাই রেগে গেলেন যে, হিতাহিত জ্ঞানশূন্য হয়ে মেয়েকে দিলেন চরম শাস্তি। মেয়েকে প্রাণেই মেরে ফেললেন মা। গেই অনার কিলিং এর ঘটনাটি ঘটেছে উত্তরপ্রদেশের ইটাওয়া শহরে। এদিকে এই ঘটনার কথা প্রকাশ্যে আসায় হতবাক গোটা দেশ। এখানেই শেষ নয়, মেয়েকে প্রাণে মেরেই শান্ত হননি মা। মেয়ের প্রেমিকের উপর ধর্ষণ এওং খুনের অভিযোগ আনেন।

জানা গিয়েছে, গত ২৮ আগস্ট রাতে দেবপুর থানা এলাকা থেকে পুলিশের কাছে খবর আসে যে, ১৭ বছরের এক নাবালিকা কিশোরী ফাঁসি দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। খবর পাওয়ার পর পুলিশ মৃতদেহ উদ্ধার করতে তার বাড়িতে পৌঁছায় এবং মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠায় পুলিশ। মায়ের ধারণা ছিল না যে, ময়নাতদন্ত করলেই আসল সত্য সামনে চলে আসবে। ময়নাতদন্তে সামনে আসে যে, যে আগে খুন করে তারপর তাকে ফাঁসিতে ঝোলানো হয়েছে।

এরপরই পুলিশ তদন্ত শুরু করে। তদন্তে উঠে আসে যে, মাই তাঁর মেয়েকে খুন করে ঝুলিয়ে দিয়েছে। যায়। পুলিশ অফিসার, ওমবীর সিংহ জানিয়েছেন, মৃত মেয়েটির মা তার সিঁথিতে সিঁদুর দেখেই ক্ষেপে যান এবং তার গলা টিপে হত্যা করে দেন। পুলিশ ওই কিশোরীর মা-কে গ্রেফতার করে জেল হেফাজতে নিয়েছে। এদিকে, অভিযুক্ত মা জানিয়েছেন যে, তার মেয়ে অবিবাহিত ছিল এবং তাঁর সিঁথিতে সিঁদুর দেখে, তাঁর মাথা গরম হয়ে যায়। এই নিয়ে মেয়ের সঙ্গে তাঁর বিস্তর তর্কাতর্কি ও ধাক্কাধাক্কি হয়। তারই মধ্যে তিনি উত্তেজনাবশত গলা টিপে ধরেছেন। তাতেই মৃত্যু হয় মেয়ের। তিনি আরও জানিয়েছেন যে, মেয়েকে খুন করার তাঁর কোনও উদ্দেশ্য ছিল না।