“নির্বাচনের পর শিক্ষা দেব”- অনুব্রতর হুমকিতে নিরাপত্তা চেয়ে প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি বিশ্বভারতীর উপাচার্যের

"নির্বাচনের পর শিক্ষা দেব"- অনুব্রতর হুমকিতে নিরাপত্তা চেয়ে প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি বিশ্বভারতীর উপাচার্যের

বিতর্ক যেন পিছু ছাড়ে না বীরভূমের জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডলের। এজন্য আগেও একাধিকবার খবরের শিরোনামে উঠে এসেছিল তাঁর নাম। এবার উঠল আরও বড় অভিযোগ! সম্প্রতি বিশ্বভারতীর উপাচার্য বিদ্যুৎ চক্রবর্তী প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি লিখে জানিয়েছেন অনুব্রত নাকি তাঁকে হুমকি দিচ্ছে। এই মর্মে নিরাপত্তাও দাবী করেন তিনি।

জানা গিয়েছে, গত ২৪ মার্চ প্রধানমন্ত্রীর দফতরে একটি চিঠি পাঠান বিশ্বভারতীর উপাচার্য। সেখানে তিনি জানান, অনুব্রত মণ্ডল লাগাতার তাঁকে হুমকি দিচ্ছে। প্রকাশ্যেই উপাচার্যের বিরুদ্ধে বিজেপির হয়ে কাজ করার অভিযোগ তুলে অনুব্রত বলেছেন, ‘নির্বাচনের পর যে শিক্ষা দেব, বোলপুরবাসী এমন শিক্ষা দেবে যে তুমি সারাজীবন মনে রাখবে।’ উল্লেখ্য, গত ২৩ শে মার্চ, বসন্ত উৎসব ও পৌষমেলা বন্ধ করে দেওয়ার বিরুদ্ধে বোলপুর গীতাঞ্জলি প্রেক্ষাগৃহে একটি গণ কনভেনশনের আয়োজন করা হয়েছিল। সেখানেই বিশ্বভারতীর উপাচার্য বিদ্যুৎ চক্রবর্তী ও বোলপুর বিধানসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী অনির্বাণ গঙ্গোপাধ্যায়কে মৌখিক আক্রমণ করেন অনুব্রত মণ্ডল।

প্রসঙ্গত, বিশ্বভারতীর উপাচার্যের সঙ্গে রাজ্য সরকারের সম্পর্ক ইতিমধ্যেই বেশ তলানিতে। বিশ্বভারতীর দায়িত্বভার গ্রহণ করার পরই উপাচার্য বিদ্যুৎ চক্রবর্তীর সঙ্গে বর্তমান শাসকদলের সম্পর্কের অবনতি ঘটে। এর আগেও উপাচার্যকে ‘বিজেপির মার্কা মারা উপাচার্য’, ‘পাগল’ ইত্যাদি বলে কটাক্ষ করা হয়েছিল। তবে এবার তৃণমূলের বিরুদ্ধে সরাসরি দেখে নেওয়ার হুমকির অভিযোগ তুলেছেন উপাচার্য এবং তাঁর পরিবার।

যদিও, বর্তমানে রাজ্যের তরফে বেশ নিরাপত্তা পান বিদ্যুৎ চক্রবর্তী। একজন সশস্ত্র নিরাপত্তারক্ষী সর্বদা তাঁর সঙ্গে থাকেন। তারপরও কেন্দ্রীয় নিরাপত্তা চেয়ে প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি লিখলেন তিনি। তবে, এই প্রসঙ্গে কেন্দ্রের তরফে এখনও কিছু জানানো হয়নি।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.