বঙ্গের বিধানসভা নির্বাচনে ব্রাত্য অনেক হেভিওয়েট নেতা-নেত্রী! তৃণমূলের প্রার্থী তালিকা থেকে বাদ পড়লেন কারা? দেখে নিন এক নজরে

বঙ্গের বিধানসভা নির্বাচনে ব্রাত্য অনেক হেভিওয়েট নেতা-নেত্রী! তৃণমূলের প্রার্থী তালিকা থেকে বাদ পড়লেন কারা? দেখে নিন এক নজরে
বঙ্গের বিধানসভা নির্বাচনে ব্রাত্য অনেক হেভিওয়েট নেতা-নেত্রী! তৃণমূলের প্রার্থী তালিকা থেকে বাদ পড়লেন কারা? দেখে নিন এক নজরে / ছবি সৌজন্যে- Screengrab from Facebook Video Posted By @MamataBanerjeeOfficial

বংনিউজ২৪x৭ডিজিটাল ডেস্কঃ আজই বাংলার আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনের রাজ্যের শাসকদল তৃণমূলের প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এবারের বিধানসভা নির্বাচনে অনেক চমক দেওয়া হয়েছে প্রার্থী তালিকা নির্বাচনে। এবারের নির্বাচনে প্রার্থী হিসেবে রয়েছেন বিভিন্ন পেশার মানুষ। সঙ্গীত জগতের পাশাপাশি রয়েছেন অভিনয় জগতের একঝাঁক তারকা। আবার ঠিক সেইভাবেই বাদ পড়েছেন অনেক হেভিওয়েট এবং অভিজ্ঞ নেতা-মন্ত্রী। আবার এমন কিছু তরুণ মুখ এই প্রার্থী তালিকা থেকে বাদ পড়েছেন, যাঁদের বিষয়ে মনে করা হচ্ছিল যে, এবারের হাই-ভোল্টেজ নির্বাচনে তাঁদের দেখা যাবে।

এবার দেখে নেওয়া যাক কারা কারা এই প্রার্থী তালিকা থেকে বাদ পড়েছেন। এবারের প্রার্থী তালিকা প্রকাশ হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে দেখা যায় যে, সেই তালিকা থেকে বাদ পড়েছেন ৫ মন্ত্রী সহ ২০১৬-র বিধানসভা নির্বাচনে জয়ী ২৭ জন বিধায়ক। তাঁরা হলেন- অমল আচার্য (ইটাহার), অসিত মাঝি , প্রদ্যুৎ ঘোষ (নারায়ণগড়), মইনউদ্দিন শামস (নলহাটি), হিতেন বর্মন (শীতলকুচি), আশিস চক্রবর্তী (গড়বেতা), দীপেন্দু বিশ্বাস (বসিরহাট দক্ষিণ), রফিকুল ইসলাম (আমডাঙা), জেমস কুজুর (কুমারগ্রাম), গৌরীশঙ্কর দত্ত, নার্গিস বেগম (মেমারি), দেবশ্রী রায় (রায়দিঘি), জীবন মুখার্জি (সোনারপুর দক্ষিণ), পরেশ পাল (বেলেঘাটা), সমীর চক্রবর্তী (তালডাংরা), সোনালি গুহ (সাতগাছিয়া), স্মিতা বক্সী (জোঁড়াসাকো), মালা সাহা (কাশীপুর-বেলগাছিয়া), রবিরঞ্জন চ্যাটার্জি (বর্ধমান দক্ষিণ), রবীন্দ্রনাথ ভট্টাটার্য (সিঙ্গুর), জটু লাহিড়ী (শিবপুর), ব্রজমোহন মুখার্জি, রেজ্জাক মোল্লা (ভাঙড়), রত্না ঘোষ কর (চাকদা), বাচ্চু হাঁসদা (তপন), পূর্ণেন্দু বসু (রাজারহাট-গোপালপুর), অমিত মিত্র (খড়দা)

এদিকে প্রার্থী তালিকা প্রকাশ পাওয়ার পর, তৃণমূলের অনেক নেতা-নেত্রী তাঁদের ক্ষোভ উগড়ে দিয়েছেন। কেউ আবার কেঁদেও ফেলেছেন। এবারের নির্বাচনে অনেকেই টিকিট পাননি। তাঁদের মধ্যে অন্যতম একজন হলেন আরাবুল ইসলাম।

এবারের বিধানসভা নির্বাচনে টিকিট না পেয়ে, তিনি রীতিমতো দলের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগড়ে দিয়েছেন। তিনি সরাসরি বলেছেন যে, দলে আজ তাঁর প্রয়োজন ফুরিয়েছে। তাঁর আরও দাবি, তিনি এতদিন দিনরাত এক করে দলের হয়ে কাজ করে গেছেন। যার প্রতিদান আজ তিনি পেলেন। তাঁর আক্ষেপের কথা জানাতে গিয়ে কেঁদেও ফেলেন। বলেন যে, এই দলটাকেই ভালোবেসে সাধারণ মানুষের জন্য, তাঁদের পাশে থেকে কাজ করে গেছেন। এই মুহূর্তে ভাঙরের মানুষ যা ঠিক করবেন, আগামীদিনে তিনি সেটাই করবেন। আজ প্রার্থী ঘোষণার পর, আরাবুলকে প্রার্থী ঘোষণা না করার কারণে, তাঁর অনুগামীরা রাস্তায় টায়ার জ্বালিয়ে পথ অবরোধ করেন এবং বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন।

তাঁর মতোই প্রার্থী হতে না পেরে আক্ষেপ প্রকাশ করেছেন সোনালী গুহ। তিনি বলেন, এতো বছর মুখ্যমন্ত্রীর ছায়াসঙ্গী ছিলেন। কিন্তু আজ যা হল, তা তিনি একেবারেই আশা করেনন্‌ কথা বলতে গিয়ে তিনি কেঁদেও ফেলেন। সিঙ্গুরের মাস্টারমশাইও বলেন যে এই বয়সেও তিনি দলের প্রতিটি কাজে যথেষ্ট সক্রিয়। অথচ তাঁকে বয়সের অজুহাত দেখিয়ে, প্রার্থী করা হল না। তিনি এও বলেন যে নির্বাচনে ফল ভাল হবে না।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, আগামী ২৭ মার্চ বঙ্গে শুরু হচ্ছে বিধানসভা ভোট। এবারের নির্বাচন হবে ৮ দফায়। ফল প্রকাশ ২ মে।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.