এগরার সভায় তৃণমূলত্যাগীদের নিশানা করলেন মমতা! বললেন, গদ্দারদের এক ইঞ্চিও জমি ছাড়বেন না

এগরার সভায় তৃণমূলত্যাগীদের নিশানা করলেন মমতা! বললেন, গদ্দারদের এক ইঞ্চিও জমি ছাড়বেন না
এগরার সভায় তৃণমূলত্যাগীদের নিশানা করলেন মমতা! বললেন, গদ্দারদের এক ইঞ্চিও জমি ছাড়বেন না / ছবি সৌজন্যে- Screengrab from Facebook Video Posted By @MamataBanerjeeOfficial (1)

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ বাংলায় আসন্ন বিধানসভা নির্বাচন উপলক্ষে নন্দীগ্রামে প্রচারে গিয়ে আঘাত পাওয়ার পর, আজ ফের পূর্ব মেদিনীপুরের এগরায় নির্বাচনী সভা করলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আজ এগরার সভা থেকে বিজেপির সঙ্গে ফের একবার তৃণমূলত্যাগীদের কড়া ভাষায় আক্রমণ করলেন। তৃণমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্পষ্ট বার্তা, গদ্দারদের এক ইঞ্চি জমিও ছাড়বেন না।

এদিন তিনি রাজ্যে শিক্ষক নিয়োগের প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন যে, বাংলায় শিক্ষকের সংখ্যা দ্বিগুণ করা হবে। তিনি বলেন যে, ‘আমি জানি আগে যেসব গদ্দার ছিল, তারা চাকরি নিয়ে অনেক বেইমানি করেছে।’ তিনি বলেন, এবার সরাসরি কাজকর্ম হবে। কারও মাধ্যমে নয়। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দাবি, এখন সেই গদ্দাররাই বিজেপির প্রার্থী হয়েছে। বিজেপির পুরনো মানুষরা আর নেই। এখন তাঁরা ঘরে বসে কাঁদছেন। আর সিপিএমের যারা হার্মাদ আর তৃণমূল কংগ্রেসের কিছু চিটিংবাজ লোক বিজেপিতে গিয়ে ছড়ি ঘোরাচ্ছে।

আজকের সভায় বিজেপিকে নিশানা করে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন যে, বিজেপি দাঙ্গা করে, চুরি করে। বিজেপি রেল, বিএসএনএল, এলআইসি বিক্রি করে দিচ্ছে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দাবি করেন যে, কেন্দ্রের মোদী সরকার একটা অপদার্থ, দাঙ্গাবাজ সরকার। তাই ওদের একটা ভোটও দেওয়া যাবে না।

সম্প্রতি নন্দীগ্রামে আঘাত পাওয়ার ঘটনা প্রসঙ্গে তৃণমূল নেত্রী বলেন, ‘এত আঘাত পেয়েও আমি ঘুরছি। এর আগেও সিপিএম মেরেছে। মাথায় মারা হয়েছিল, সেলাই হয়েছে। আমার ২ টি হাত ভাঙা। কোমরে মেরেছে, পেটে মেরেছে, চোখে মেরেছে। পা বাকি ছিল, এবার পায়েও আঘাত করল। যন্ত্রণা আছে। কিন্তু তার থেকেও বড় আতঙ্ক হল, বিজেপি যদি আসে, তাহলে আমার মা-বোনেরা কেউ ঘরবাড়ি নিয়ে থাকতে পারবে না। ওদের হাত থেকে বাংলাকে বাঁচতে হবে।’

আজ এগরার জনসভা থেকে তৃণমূল নেত্রী কিছু প্রশ্ন ছুঁড়ে দেন জনগণের উদ্দেশে। তিনি প্রশ্ন করেন, বিজেপিকে জিজ্ঞাসা করুন আপনাদের দলে মহিলারা কতোটা সুরক্ষিত? মা-বোনেরা সুরক্ষিত?

তৃণমূল নেত্রী উত্তরপ্রদেশের সাম্প্রতিকের ধর্ষণের ঘটনা টেনে এনে বলেন যে, ‘হাথরসে একটি মেয়েকে ধর্ষণ করে খুন করল। তারপর অন্য আরও একটি ধর্ষণের ঘটনা ঘটল। মেয়েটি আদালতে গেল। কিন্তু ফিরে যাওয়ার সময়ে গুন্ডারা তাকে তাড়া করে তার গায়ে আগুন জ্বালিয়ে দিল। মেয়েটি মারা গেল। এরপর মেয়েটির বাবা এর প্রতিবাদ করলে, তাকেও মেরে ফেলা হল। বিজেপির মতো পার্টি ভোট আসলেই হরি হরি বলে। আর পেছনে থেকে ডাকাতি করে। বাংলা ওদের জায়গা নয়।’

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জনগণের উদ্দেশে বলেন, ‘বিজেপিকে মাঠের বাইরে বের করে দেবেন তো? নো ভোট টু বিজেপি। সিপিএমকে ভোট দেওয়া মানে হার্মাদদের ভোট দেওয়া। আপনারা যদি আমায় চান, তাহলে কে প্রার্থী হচ্ছেন তা দেখবেন না। আমি থাকলে সব পাবেন।’

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.