একাধিক দাবিদাওয়া নিয়ে ফের দিল্লি সফরে মমতা! সাক্ষাৎ করতে পারেন প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে

একাধিক দাবিদাওয়া নিয়ে ফের দিল্লি সফরে মমতা! সাক্ষাৎ করতে পারেন প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে
একাধিক দাবিদাওয়া নিয়ে ফের দিল্লি সফরে মমতা! সাক্ষাৎ করতে পারেন প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ সবকিছু ঠিক থাকলে আগামী সপ্তাহেই দিল্লি সফরে যেতে চলেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রাজনৈতিক সূত্রের খবর, ২২ নভেম্বর রাজধানীতে পা রাখতে চলেছেন মুখ্যমন্ত্রী। দেখা করবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গেও। এই সফরে একাধিক গুরুত্বপূর্ণ দাবি-দাওয়া নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর এই সফর।

রাজ্যের বকেয়া টাকা পাওয়ার দাবির পাশাপাশি বিএসএফের ক্ষমতা বৃদ্ধি নিয়েও আলোচনা হতে পারে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে। বিএসএফের ক্ষমতা বৃদ্ধি নিয়ে রাজ্য সরকারের আপত্তির কথা সরাসরি প্রধানমন্ত্রীকে জানাতে চান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

সূত্রের খবর, ২২ নভেম্বর দিল্লি যাবেন মুখ্যমন্ত্রী। আর ফিরবেন ২৫ নভেম্বর। মাঝের দু’দিন রাজধানীতে থাকবেন মুখ্যমন্ত্রী। তার মাঝেই একদিন প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে তাঁর সাক্ষাৎ করার কথা। পাশাপাশি বিরোধী দলনেতাদের সঙ্গেও সাক্ষাৎ করার কথা রয়েছে। তবে, নজর প্রধানত থাকবে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাতের উপরেই।

এদিকে, সোমবার কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণের সঙ্গে ভারচুয়ালি বৈঠক করেছেন রাজ্যের অর্থপ্রতিমন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য। সেখানে রাজ্যের বকেয়া নিয়ে আলোচনা করেন দু’জন। রাজ্যের বক্তব্য, কেন্দ্র সেস বসিয়ে নিজের আয় বাড়াচ্ছে। রাজ্যগুলি তার ভাগ পাচ্ছে না। রাজ্য কেন্দ্রের কাছে রাজ্য জিডিপি-র ৫% ঋণ নেওয়ার ক্ষমতা দাবি করেছিল। তা না মেনে ৩.৫% করা হয়েছে। একাধিক কেন্দ্রীয় প্রকল্পে বরাদ্দ টাকা পাওয়া যাচ্ছে না। প্রাকৃতিক দুর্যোগের ক্ষতিপূরণ বাবদও অর্থ দিচ্ছে না কেন্দ্র। কেন্দ্রীয় করের ভাগ হিসেবেও কম টাকা মিলছে বলে অভিযোগ রাজ্যের। মোদীর সঙ্গে বৈঠকে এই হিসেবেনিকেশ নিয়ে কথা হওয়ার সম্ভাবনা।

উল্লেখ্য, একুশের বিধানসভা নির্বাচনে জিতে তৃতীয়বারের জন্য বাংলার ক্ষমতায় আসার পরে গত জুলাইয়ে মুখ্যমন্ত্রী দিল্লিতে এসেছিলেন। সেই সময়েও তিনি প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকের পাশাপাশি কংগ্রেস সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধীর সঙ্গেও বৈঠক করেছিলেন। তাই এবারেও বিরোধী নেতাদের সঙ্গে বৈঠক হবে কিনা তা নিয়ে ইতিমধ্যেই জল্পনা শুরু হয়েছে।

অন্যদিকে, রাজনৈতিক সূত্রের খবর, প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে রাজ্যের সীমান্ত-লাগোয়া ৫০ কিলোমিটার পর্যন্ত এলাকায় বিএসএফের এক্তিয়ার বাড়ানো নিয়ে রাজ্যের আপত্তির কথা তুলে ধরবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। উল্লেখ্য, মুখ্যমন্ত্রী আগেই এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি লিখেছিলেন। নভেম্বরের শেষে সংসদে যে অধিবেশন শুরু হবে, সেখানেও তৃণমূল এ নিয়ে সরব হবে বলে জানা গিয়েছে। তাই মুখ্যমন্ত্রীর এই সফর যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ বলেই মনে করছে রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা।