শিলিগুড়িতে পিছিয়ে অশোক ভট্টাচার্য্য, এগিয়ে শিষ্য শঙ্কর

শিলিগুড়িতে পিছিয়ে অশোক ভট্টাচার্য্য, এগিয়ে শিষ্য শঙ্কর
শিলিগুড়িতে পিছিয়ে অশোক ভট্টাচার্য্য, এগিয়ে শিষ্য শঙ্কর

শিলিগুড়ির লড়াইয়ে শিষ্য শঙ্কর ঘোষের কাছে দু’ রাউন্ডের পর পিছিয়ে গেলেন অশোক ভট্টাচার্য্য। প্রাক্তন বাম মন্ত্রী অশোক ভট্টাচার্য্য তৃতীয় স্থানে নেমে গেছেন। তৃণমূল প্রার্থী ওমপ্রকাশ মিশ্রকে ১৪ হাজারেরও বেশি ভোটে পিছিয়ে শঙ্কর এগিয়ে গেছেন। ভোটের ঠিক আগেই বাম থেকে বিজেপিতে যান শঙ্কর।

এদিকে, কাশীপুর-বেলগাছিয়া কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী অতীন ঘোষ এগিয়ে রয়েছেন। তৃতীয় রাউন্ড গণনার শেষে এই কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী শিবাজি সিং রায়ের থেকে অতীন ঘোষ ১ হাজার ৯৭৪ ভোটে এগিয়ে আছেন।

বিজেপির তারকা প্রার্থী বাবুল সুপ্রিয়কে পিছনে ফেলে ক্রমশ ব্যাবধান বাড়িয়ে এগিয়ে চলেছেন টালিগঞ্জের তৃণমূল প্রার্থী অরূপ বিশ্বাস। চতুর্থ রাউন্ডের শেষে তিনি এগিয়ে রয়েছেন ১২,৫০০ ভোটে। এর আগে দ্বিতীয় ও তৃতীয় রাউন্ডেও এগিয়ে ছিলেন তিনি।

এদিকে প্রথম তিন রাউন্ড গণনার পর দিলীপ ঘোষ জানান, “উত্থান-পতন চলছে। তৃণমূল পিছনের দিকে যাচ্ছে। ৫০ শতাংশ গণনা না হলে কিছু বলা যাবে না।বিজেপি ঠিক পথে এগোচ্ছে। অন্যদিকে, নন্দীগ্রামে শুভেন্দু অধিকারীর এগিয়ে থাকা নিয়ে তিনি বলেন, “শুভেন্দুবাবুকে নিয়ে আশা ছিল। ওখানকার জনতা ওনাকেই পছন্দ করেন।” যদিও চতুর্থ রাউন্ড শেষে নন্দীগ্রামে ব্যবধান কমালেন মমতা। ৪০০০ ভোটে এগিয়ে শুভেন্দু। তৃতীয় রাউন্ড শেষে সংখ্যাটি ছিল ৮০০০।

এদিন সকাল ৮টা থেকে পোস্টাল ব্যালট গণনা শুরু হয়েছে। সাড়ে ৮টা থেকে ইভিএম গণনা শুরু হয়েছে। সর্বনিম্ন ১৭ থেকে সর্বোচ্চ ৩০ রাউন্ড পর্যন্ত গণনা হবে।  ২৩ জেলার ২৯২ টি কেন্দ্রের প্রার্থীদের ভাগ্য গণনা হবে ১০৮ টি কেন্দ্র থেকে। এর মধ্যে কলকাতার ১১ টি আসনের জন্য রয়েছে ৬ টি গণননাকেন্দ্র। ভোট যুদ্ধ শেষ। ফলাফলের দিকে তাকিয়ে বাংলা। টানটান উত্তেজনা সব শিবিরে। কোন দিকে জনতার রায়? উত্তর লুকিয়ে ইভিএমে।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.