পুজো কমিটিকে অনুদানের জন্য বরাদ্দ ২০০ কোটি! বন্টনে উপস্থিত থাকবেন না রাজনৈতিক নেতারা

পুজো কমিটিকে অনুদানের জন্য বরাদ্দ ২০০ কোটি! বন্টনে উপস্থিত থাকবেন না রাজনৈতিক নেতারা
পুজো কমিটিকে অনুদানের জন্য বরাদ্দ ২০০ কোটি! বন্টনে উপস্থিত থাকবেন না রাজনৈতিক নেতারা

রাজ্য সরকারের তরফে আগেই জানানো হয়েছিল ক্লাব এবং পুজো কমিটিগুলিকে ৫০ হাজার টাকা করে অনুদান দেওয়া হবে। সেই জন্য এবছর ২০১ কোটি ৯১ লক্ষ টাকা অনুমোদন করল রাজ্য অর্থ দপ্তর। এই অর্থগুলি বন্টনের ভার দেওয়া হয়েছে কলকাতা ও রাজ্য পুলিশকে। কমিউনিটি পুলিশিং হিসেবে মোট ৪০৩৮২টি ক্লাব, পুজো কমিটি ও অর্গানাইজারকে এই টাকা দেওয়া হবে। এর মধ্যে ৩৭,৩৮২টি ক্লাব, পুজো কমিটি রাজ্যে পুলিশ এলাকা এবং ৩০০০টি ক্লাব বা পুজো কমিটি কলকাতা পুলিশ এলাকার অন্তর্গত। তাই অনুমোদিত টাকার মধ্যে মোট ১৮৬ কোটি ৯১ লক্ষ টাকা রাজ্য পুলিশ এবং ১৫ কোটি টাকা কলকাতা পুলিশ বন্টন করবে।

আসলে এই রাজ্যের পুলিশ ব্যবস্থার একটি অন্যতম অংশ হচ্ছে কমিউনিটি পুলিশিং। রাজ্যের আমজনতা এবং পুলিশের মধ্যে বন্ধন আরও দৃঢ় করতে সাহায্য করে এই কমিউনিটি পুলিশিং। এমনিতেই পুজোর সময় সাধারণ মানুষের মধ্য থেকেই ভলান্টিয়ার নিয়ে থাকেন পুলিশেরা। তাই রাজ্যের অন্যতম শ্রেষ্ঠ উৎসব দূর্গা পূজার সময়ে এই কমিউনিটি পুলিশিং ব্যবস্থাকে আরও দৃঢ় করতে চায় রাজ্য সরকার। তাই এর মাধ্যমেই পুজো কমিটিগুলিকে সাহায্য করার জন্য বরাদ্দ করা হল এই ২০১ কোটি ৯১ লক্ষ টাকা অনুদান।

প্রসঙ্গত, পুজোর পরেই রাজ্যের ৪টি বিধানসভা আসনে উপনির্বাচনও বটে। দিনহাটা, শান্তিপুর, খরদা, গোসাবায় পুজোর পরই হবে ভোট। সেই কারণে নদিয়া, কোচবিহার, দক্ষিণ ২৪ পরগনা এবং উত্তর ২৪ পরগনার যেখানে নির্বাচন রয়েছে সেই জেলাগুলিতে পুলিশের বদলে সিভিল অ্যাডমিনিস্ট্রশেন, একাউন্ট পে চেক দেবে। মডেল কোড অফ কন্ডাক্টের কথা মাথায় রেখেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এছাড়াও চেক প্রদানে কোনও রকম অনুষ্ঠান না করার বা কোনও রকম রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব উপস্থিত থাকবেন না এ কথাও জানানো হয়েছে।