আগামীকালও রাজ্যের এই জেলাগুলিতে রয়েছে বৃষ্টির সম্ভবনা! কবে পালটাবে আবহাওয়ার এই পরিস্থিতি?

আগামীকালও রাজ্যের এই জেলাগুলিতে রয়েছে বৃষ্টির সম্ভবনা! কবে পালটাবে আবহাওয়ার এই পরিস্থিতি?
আগামীকালও রাজ্যের এই জেলাগুলিতে রয়েছে বৃষ্টির সম্ভবনা! কবে পালটাবে আবহাওয়ার এই পরিস্থিতি? / প্রতীকী ছবি

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ মকর সংক্রান্তিতেও নেই শীতের আমেজ। উল্টে রাজ্যজুড়ে রয়েছে বৃষ্টির পূর্বাভাস। হাওয়া অফিস বলছে, রাজ্যের উপকূলীয় জেলাগুলোতে আজ থেকে সামান্য বাড়তে পারে পরিমাণ। শুক্রবার দিনভর দক্ষিণবঙ্গের ১৫ টি জেলাতেই বৃষ্টির পূর্বাভাস ছিল। হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি হতে পারে বলেই জানিয়েছে আলিপুর আবহাওয়া দফতর।

ভারী বৃষ্টির সম্ভবনা রয়েছে দক্ষিণ ২৪ পরগণা, পূর্ব মেদিনীপুর এবং পশ্চিম মেদিনীপুরে। ওই ৩ জেলায় বজ্রবিদ্যুৎ-সহ বৃষ্টি হতে পারে জানিয়েছে হাওয়া অফিস। অন্যদিকে, শনিবার দক্ষিণবঙ্গের বেশিরভাগ জেলায় বৃষ্টি কমতে পারে বলে পূর্বাভাস থাকলেও, বেশ কিছু জেলায় বিক্ষিপ্তভাবে বৃষ্টির সম্ভবনা রয়েছে। মূলত দক্ষিণ ২৪পরগনা, দুই মেদিনীপুর, ঝাড়গ্রামে হালকা বৃষ্টি হতে পারে।

বৃহস্পতিবার থেকেই আকাশ মেঘলা ছিল, শুক্রবারও সকাল থেকেই আকাশ মেঘলা ছিল কলকাতায়। এদিকে, গতকাল থেকেই গঙ্গাসাগর মেলায় ভিড় করতে শুরু করে দিয়েছেন পুর্ন্যার্থীরা। আজ সকাল থেকেই বৃষ্টির মধ্যেই ছিল সাগর স্নানের তাড়াহুড়ো। বুধবার থেকে কলকাতার পাশাপাশি দক্ষিণবঙ্গের একাধিক জেলায় বৃষ্টি শুরু হয়। বুধবার সন্ধে থেকেই ঝড় বৃষ্টি হয় দক্ষিণবঙ্গের একাধিক জেলায়, শিলাবৃষ্টিও হয়েছে। এদিকে, বৃহস্পতিবার রোদ উঠলেও বিকেল থেকে আকাশে মেঘ ছিল।

আজও কলকাতা-সহ দক্ষিণবঙ্গের একাধিক জেলায় বৃষ্টির পূর্বাভাস ছিল। বৃষ্টির পূর্বাভাস ছিল উত্তরবঙ্গের জেলাগুলিতেও। এদিকে, পশ্চিমী ঝঞ্ঝার কারণে মকর সংক্রান্তিতেও শীতের দেখা নেই রাজ্যে। গত কয়েকদিন ধরেই রাজ্যে বাড়ছিল তাপমাত্রার পারদ। আজ শহরের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ২১ ডিগ্রি সেলসিয়াসের কাছাকাছি থাকবে বলে জানিয়েছে হাওয় অফিস। আর সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৭ ডিগ্রি সেলসিয়াসের কাছাকাছি থাকবে। শীত তেমন অনুভূত হবে না। উল্টে একটা স্যাঁতস্যাঁতে আবহাওয়া দেখা যাবে। তাপমাত্রার পারদ বেশির দিকেই থাকবে বলে জানিয়েছে হাওয়া অফিস।

তবে, রবিবার থেকে রাজ্যে আবহাওয়া বদলাতে শুরু করবে বলেও জানিয়েছে আলিপুর আবহাওয়া দফতর। তবে শনিবার কলকাতা শহরে তেমন বৃষ্টির সম্ভাবনা নেই। আবহাওয়া মূলত শুষ্ক থাকবে। ১৬ জানুয়ারি থেকে আবহাওয়া বদলাতে শুরু করবে এবং রোদ ঝলমলে আকাশের দেখা মিলবে। তবে, জাঁকিয়ে শীত পড়ার সম্ভবনা নেই বলেই জানিয়েছে আবহাওয়াবিদরা। আলিপুর আবহাওয়া দফতরের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে যে, জানুয়ারি মাসে জাঁকিয়ে শীত পড়ার সম্ভবনা তেমন নেই। পরপর পশ্চিমী ঝঞ্ঝার কারণে উত্তুরে হাওয়া বাধা প্রাপ্ত হচ্ছে। তাপমাত্রা সামান্য নামলেও, জাঁকিয়ে কনকনে ঠাণ্ডার তেমন কোনও সম্ভবনা নেই। উল্লেখ্য, উত্তর-পশ্চিম ভারত থেকে ধেয়ে আসা পশ্চিমী ঝঞ্ঝার জেরে শীত উধাও হয়েছে দক্ষিণবঙ্গে। এর প্রভাবেই বুধবার থেকেই আকাশ মেঘলা হয়েছে রাজ্য জুড়ে। শনিবার আকাশ পরিষ্কার হলে, ফের ঘুরে ফিরতে পারে শীতের আমেজ। পাশাপাশি মনে করা হচ্ছে, রাতের তাপমাত্রা ২ ডিগ্রি থেকে ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত নামতে পারে বলে মনে করছেন আবহাওয়া বিশেষজ্ঞদের একাংশ।