আবারও নিম্নচাপের ভ্রূকুটি! রাতের তাপমাত্রা কমলেও সপ্তাহান্তে এই জেলাগুলিতে বৃষ্টির সম্ভবনা

আবারও নিম্নচাপের ভ্রূকুটি! রাতের তাপমাত্রা কমলেও সপ্তাহান্তে এই জেলাগুলিতে বৃষ্টির সম্ভবনা
আবারও নিম্নচাপের ভ্রূকুটি! রাতের তাপমাত্রা কমলেও সপ্তাহান্তে এই জেলাগুলিতে বৃষ্টির সম্ভবনা / প্রতীকী ছবি

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ কার্তিক গিয়ে এখন অগ্রহায়ণ মাস, তবু দেখা নেই শীত বুড়োর। তবে, জাঁকিয়ে শীত না পড়লেও, রাজ্য জুড়ে এখন পরিবেশ বেশ মনোরম। গরমের যেমন দাপট নেই, তেমনই আবার নেই কনকনে ঠাণ্ডা। এই অবস্থায় বাঙালি শীত শীত আমেজ নিয়েই দুধের স্বাদ ঘোলে মেটাচ্ছে বলা যায়। তবে, এই মনোরম আবহাওয়ার আবার শুক্রবারের পর পরিবর্তন হতে পারে। কারণ ফের দুয়ারে নিমচাপ। তাই হাওয়া অফিস জানাচ্ছে শীত এখনও দূরেই।

আলিপুর আবহাওয়া দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে, আগামী দুই থেকে তিনদিন রাতের তাপমাত্রা ১ থেকে ২ ডিগ্রি কমলেও, ফের সপ্তাহ শেষে শীতের আমেজ কমে যাবে। প্রধানত শনিবারের পর থেকেই বাড়তে থাকবে রাতের তাপমাত্রা। আবারও দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলিতে হালকা বৃষ্টির সম্ভবনা রয়েছে বলেই জানাচ্ছে হাওয়া অফিস। রবিবার রাত থেকে অথবা সোমবার বৃষ্টি হতে পারে উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগণা এবং পূর্ব মেদিনীপুরে। বৃষ্টির সম্ভবনা রয়েছে কলকাতাতেও। হালকা বৃষ্টি হতে পারে হাওড়া, হুগলি, ঝাড়গ্রাম ও পশ্চিম মেদিনীপুরেও।

জানা গিয়েছে, দক্ষিণ-পূর্ব বঙ্গোপসাগরের উপর একটি নিম্নচাপ তৈরি হয়েছে, যেটি ক্রমশ তামিলনাড়ুর দিকে এগোবে। এই নিম্নচাপের প্রভাবে বাংলার বায়ুমণ্ডলে প্রবেশ করবে প্রচুর পরিমাণে জলীয় বাষ্প। এর ফলে শনিবার থেকে দক্ষিণবঙ্গে রাতের তাপমাত্রা দুই থেকে তিন ডিগ্রি বাড়তে পারে। দক্ষিণবঙ্গে বৃষ্টির পূর্বাভাস থাকলেও, উত্তরবঙ্গে আবহাওয়া শুষ্কই থাকবে বলে জানিয়েছে হাওয়া অফিস।

বৃহস্পতিবার কলকাতা-সহ দক্ষিণবঙ্গে আকাশ থাকবে মূলত পরিষ্কার। এদিন বৃষ্টির কোনও সম্ভাবনা নেই। আগামী কয়েকদিন খুব সামান্য হলেও নামবে তাপমাত্রা। কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা থাকবে ১৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যা স্বাভাবিকের থেকে এক ডিগ্রি বেশি। সর্বোচ্চ তাপমাত্রা থাকবে ২৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যা স্বাভাবিকের থেকে দুই ডিগ্রি কম। বাতাসে আপেক্ষিক আর্দ্রতার পরিমাণ ৯৩ শতাংশ। মঙ্গলবার শহরের তাপমাত্রা ছিল ২৯.৫ ডিগ্রি। সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১৮.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস যা স্বাভাবিকের থেকে এক ডিগ্রি কম।

এবছরে একের পর এক নিম্নচাপের প্রভাবে জেরবার মানুষ। একটার রেশ কাটতে না কাটতেই আরও একটা হাজির হচ্ছে। য়ার এই সময় এই নিম্নচাপের কারণে বাধা পাচ্ছে উত্তুরে হাওয়া। আলিপুর আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাস অনুযায়ী, নিম্নচাপের জেরে শীত আসতে দেরি হচ্ছে। কাজেই জাঁকিয়ে শীতের জন্য অপেক্ষা করতে হবে ডিসেম্বরের মাঝামাঝি পর্যন্ত। ১৫ ডিসেম্বরের আগে আপতত জাঁকিয়ে শীত পড়বে না বলেই জানাচ্ছে আবহাওয়া দফতর।