বাসের ভাড়া কি আরও বাড়বে? বৈঠকে স্পষ্ট করলেন ফিরহাদ

বাসের ভাড়া কি আরও বাড়বে? বৈঠকে স্পষ্ট করলেন ফিরহাদ
বাসের ভাড়া কি আরও বাড়বে? বৈঠকে স্পষ্ট করলেন ফিরহাদ

বাসের ভাড়া বাড়ানো যাবে না বরং কিভাবে বিকল্প পথ খুঁজে বের করা যায় তা জানতেই বুধবার বৈঠকে বসে ছিল বাস মালিক সংগঠন এবং রাজ্য পরিবহন দপ্তর। কিন্তু এদিনও বৈঠক শেষে অধরা থেকে গেল ভাড়া বৃদ্ধির সূত্র। বরং পরিবহন মন্ত্রীর কাছে আরো একগুচ্ছ আর্জি জানাল বাস মালিক সংগঠন।

এদিন সন্ধ্যায় ময়দানের পরিবহন দপ্তরের টেন্টে দীর্ঘক্ষন বৈঠক হয় বাস মালিক সংগঠনের সঙ্গে রাজ্যের পরিবহনমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমের। এরপরেই বৈঠক শেষে জানা যায়, নিজেদের বেশকিছু আর্জির কথা তারা জানিয়েছেন পরিবহনমন্ত্রীকে। ২০২২-এর ৩০ শে জুন পর্যন্ত ট্যাক্স সিএফ ফাইন মকুব করার দাবি জানানো হয়েছে। ২-৪ লক্ষ টাকা ক্রেডিট কার্ড দিতে হবে সমস্ত বাস মালিকদের। এর ফলে গাড়ির কাগজ ও ইএমআই দেওয়ার সহজ হবে বলেই মনে করছে বাস মালিক সংগঠন।

বাস মালিকদের তরফে আরও জানানো হয়েছে, লাইসেন্স পদ্ধতিতে সরলীকরণ করা হোক। পুরসভার বিপজ্জনক বাড়ি অধিগ্রহণ করে সেখানে পার্কিং করে সার্ভিস রোড ক্লিয়ার করুক বলেও দাবি তোলা হয়েছে। এতে দুর্ঘটনা কমবে বলেই মত বাস মালিক সংগঠনের। রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে সিএফ করাতে পারে সমস্ত গাড়ি এই ব্যবস্থা করা হোক। জেএনএনইউরামের আওতায় থাকা যারা বাস নিয়েছিল তাদের মধ্যে যারা ৫০ শতাংশ কিস্তি শোধ করেছে তাদের ছাড় দেওয়া হোক।

এদিকে,সিএনজি বা ইলেকট্রনিক বাস চালু করার কথা জানিয়েছেন পরিবহন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। এতে সম্মতিও দিয়েছে বাস মালিক সংগঠন। কিন্তু কবে পুরনো ভার্সন ব্যাটারি লাগিয়ে তার সিএনজিতে পরিণত করে চালু করা হবে সে বিষয় এখনও অধরা। এমনকি এদিনের বৈঠকেও কোনও সমাধান এখন পাওয়া যায়নি। তবে বুধবারের বৈঠকে পরিবহন মন্ত্রী বাস মালিকদের এই আর্জি মেটানোর আশ্বাস দিয়েছেন।