শনিবার, ২৮ জানুয়ারি, ২০২৩

কু মন্তব্যের শিকার ছাত্রী! ইভটিজারদের তাণ্ডবে হাত ভাঙলো নাবালিকার

মৌসুমী

প্রকাশিত: ডিসেম্বর ২০, ২০২২, ০৪:৪৯ পিএম | আপডেট: জানুয়ারি ২০, ২০২৩, ০৮:৪৪ এএম

কু মন্তব্যের শিকার ছাত্রী! ইভটিজারদের তাণ্ডবে হাত ভাঙলো নাবালিকার
কু মন্তব্যের শিকার ছাত্রী! ইভটিজারদের তাণ্ডবে হাত ভাঙলো নাবালিকার

রোজই স্কুল থেকে বাড়ি আসার সময় ইভটিজিংয়ের শিকার হয় স্কুলছাত্রীরা। এবার এই ইভটিজারদের তাণ্ডবে হাত ভাঙলো এক একাদশ শ্রেণির ছাত্রীর। এই ঘটনায় রীতিমতো চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে মালদহের হরিশ্চন্দ্রপুর এক নম্বর ব্লকের মহেন্দ্রপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের অন্তর্গত ভালুকাগামী রাজ্য সড়কে। এই ঘটনা ইতিমধ্যেই অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে হরিশ্চন্দ্রপুর থানায়।

জানা গিয়েছে সোমবার দুপুর একটা নাগাদ মহেন্দ্রপুর উচ্চ বিদ্যালয় এর একাদশ শ্রেণির চার ছাত্রী হেঁটে বাড়ি ফিরছিলেন স্কুল থেকে। সেই সময় ভালুকাগামি রাজ্য সড়কের মহেন্দ্রপুর পেট্রোল পাম্প এর কাছে ৩ যুবক ওই চার ছাত্রীকে উত্যক্ত করতে থাকে। এবার এই অভিযোগ বাইকে করে আসা ওই তিন যুবক চলন্ত বাইক থেকে এক ছাত্রীর হাত ধরে হ্যাচকা টান মারে। তখনই বেকার দায় ওই ছাত্রীর হাত ভেঙে যায়।

এই ঘটনায় তড়িঘড়ি স্থানীয়রা ছুটে আসে। সঙ্গে সঙ্গে ওই ছাত্রীকে হরিশ্চন্দ্রপুর গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানেই চিকিৎসকরা জানান ছাত্রীর হাত ভেঙে গিয়েছে। প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয় ওই ছাত্রীকে।সমস্ত ঘটনা সিসি টিভি ক্যামেরার ধরা পড়েছে।এই নিয়ে এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে।

এদিকে পুলিশ সূত্রে খবর, অভিযুক্তের নাম সারফারাজ আলী। বয়স ২২। মহেন্দ্রপুর গ্রামেই থাকে অভিযুক্ত। ইতিমধ্যেই নিগৃহিতা ছাত্রীদের অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। তাদের অভিযোগ প্রায়ই ওই যুবকরা তাদের পথ আটকে বিরক্ত করে। এই পরিস্থিতিতে তারা স্কুলে যেতে ভয় পাচ্ছেন।

এ দিকে এই ঘটনায় ওই অভিযুক্ত যুবক সরাসরি অস্বীকার করলেও সে জানায়, তার বাইকের হ্যান্ডেলের ধাক্কায় ওই ছাত্রীর হাতে আঘাত লেগেছে।ঘটনার পর থেকে মহেন্দ্রপুর উচ্চ বিদ্যালয় চত্বরে দুই সিভিক ভলেন্টিয়ার দিয়ে নজরদারির ব্যবস্থা করেছেন হরিশ্চন্দ্রপুর থানার পুলিশ।