শনিবার, ২৮ জানুয়ারি, ২০২৩

বিয়েবাড়ির আনন্দে মাতোয়ারা সকলে! আচমকাই বিস্ফোরণ, নিমেষেই ঝলসে গেলেন ৫২ জন অতিথি

আত্রেয়ী সেন

প্রকাশিত: ডিসেম্বর ৯, ২০২২, ১০:১৪ এএম | আপডেট: ডিসেম্বর ৯, ২০২২, ১০:১৮ এএম

বিয়েবাড়ির আনন্দে মাতোয়ারা সকলে! আচমকাই বিস্ফোরণ, নিমেষেই ঝলসে গেলেন ৫২ জন অতিথি
বিয়েবাড়ির আনন্দে মাতোয়ারা সকলে! আচমকাই বিস্ফোরণ, নিমেষেই ঝলসে গেলেন ৫২ জন অতিথি/ প্রতীকী ছবি

বংনিউজ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ বিয়ে বাড়ি উপলক্ষে বাড়িতে অতিথিদের ভিড় ছিল। সবাই আনন্দে মাতোয়ারা ছিলেন। বাড়ির ভিতরেই তৈরি হচ্ছিল বিয়ের ভোজ। কিন্তু বেশিক্ষণ স্থায়ী হল না আনন্দ। আচমকাই বিস্ফোরণ। এর জেরে মুহূর্তের মধ্যেই বিয়ে বাড়িতে উপস্থিত অতিথিরা ঝলসে গেলেন।

ভয়াবহ দুর্ঘটনা ঘটল বিয়েবাড়িতে। গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে ঝলসে গেলেন ৫০ জনেরও বেশি অতিথি। এই ভয়াবহ বিস্ফোরণে ইতিমধ্যেই মৃত্যু হয়েছে দুই শিশুর। মর্মান্তিক এই ঘটনা ঘটেছে রাজস্থানের যোধপুরে। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, বৃহস্পতিবার যোধপুরে একটি বিয়ে বাড়ির অনুষ্ঠানে বিস্ফোরণ হয়। বিয়ের অনুষ্ঠানে রান্না যখন হচ্ছিল, সেই সময়ই গ্যাস সিলিন্ডারে বিস্ফোরণ হয়। প্রাথমিক তদন্তে অনুমান করা হচ্ছে, গ্যাস লিক করেই এই ভয়াবহ বিস্ফোরণ হয়েছে। তবে, এর পিছনে কোনও অন্তর্ঘাত রয়েছে কিনা, তাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, রাজস্থানের যোধপুর থেকে ৬০ কিলোমিটার দূরে ভুঙ্গরা গ্রামে বৃহস্পতিবার একটি বিয়ের অনুষ্ঠান ছিল। রাতে প্রীতিভোজের জন্য বিকেল থেকেই রান্না হচ্ছিল। সেই সময় আচমকাই বিস্ফোরণ হয়। সঙ্গে সঙ্গেই প্যান্ডেলে আগুন ধরে যায়। আগুন দ্রুত ছড়িয়ে যায়। লাগোয়া বাড়িটিও ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়। জানা গিয়েছে, অত্যন্ত শক্তিশালী বিস্ফোরণ হয়েছিল।

সূত্রের খবর, বিস্ফোরণে দুই শিশুর মৃত্যু হয়েছে এখনও পর্যন্ত। পাশাপাশি ৫০ জনেরও বেশি আহত হয়েছে। আহতদের মধ্যে ১২ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলেই জানা গিয়েছে। জেলাশাসক হিমাংশু গুপ্ত জানিয়েছেন, ‘এটা অত্যন্ত বড় একটি দুর্ঘটনা। বিস্ফোরণের সময়ে বিয়ে বাড়িতে প্রায় শতাধিক মানুষ উপস্থিত ছিলেন। আহত ৫২ জনকে এমজিএইচ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। বার্ন ওয়ার্ডে তাদের চিকিৎসা চলছে। ১২ জনের দেহ অনেকটাই পুড়ে যাওয়ায় তাদের অবস্থা আশঙ্কাজনক।’

অন্যদিকে, প্রাথমিক তদন্তের পর পুলিশের তরফে অনুমান করা হচ্ছে, যে জায়গায় রান্না হচ্ছিল, সেখানে বেশ কয়েকটি গ্যাস সিলিন্ডার রাখা ছিল। ওই সিলিন্ডারগুলির মধ্যে একটি সিলিন্ডারে গ্যাস লিক হয়। আগুনের সংস্পর্শে আসতেই বিস্ফোরণ হয়। একের পর এক সিলিন্ডার বিস্ফোরণ হতে থাকে। মুহূর্তের মধ্যেই আগুন লেগে যায় প্যান্ডেল ও লাগোয়া বাড়িতেও। বিস্ফোরণের জেরে বাড়িটির একাংশ ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বলেও জানা গিয়েছে। এই ভয়াবহ দুর্ঘটনার খবরে শোক প্রকাশ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলট। আজ বিকেলে তিনি আহতদের দেখতে হাসপাতালে যেতে পারেন বলেই খবর।