বৃহস্পতিবার, ২৬ মে, ২০২২

পরপর দু’বার প্রধানমন্ত্রী হয়েও এখনই বিশ্রাম নিতে রাজি নন! কেন বলছেন মোদী একথা?

আত্রেয়ী সেন

প্রকাশিত: মে ১৩, ২০২২, ০৩:৩৪ পিএম | আপডেট: মে ১৩, ২০২২, ০৩:৪৩ পিএম

পরপর দু’বার প্রধানমন্ত্রী হয়েও এখনই বিশ্রাম নিতে রাজি নন! কেন বলছেন মোদী একথা?
পরপর দু’বার প্রধানমন্ত্রী হয়েও এখনই বিশ্রাম নিতে রাজি নন! কেন বলছেন মোদী একথা?

বংনিউজ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ থামতে রাজি নন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। ২৪-এর লোকসভা নির্বাচনে জিতে তিনিই দেশকে নেতৃত্ব দিতে চান। এমনটাই ইঙ্গিতে বুঝিয়ে দিলেন প্রধানমন্ত্রী। বৃহস্পতিবার তিনি জানান যে, এক বর্ষীয়ান বিরোধী নেতা তাঁকে জিজ্ঞাসা করেছিলেন, তিনি পরপর দুবার দেশের প্রধানমন্ত্রী হয়েছেন। এরপর তাঁর আর কী অর্জন করার বাকি থাকতে পারে। 

এ প্রসঙ্গের অবতারণা করে মোদী জানিয়েছেন স্পষ্টভাবে যে, যতদিন পর্যন্ত না সরকারি সব প্রকল্পের একশো শতাংশ বাস্তব রূপায়ণ করা যাচ্ছে, ততদিন তিনি বিশ্রাম নেবেন না। মোদীর এই মন্তব্য থেকেই পরিষ্কার যে, ২০২৪ এর লোকসভা নির্বাচনেও কেন্দ্রে বিজেপির সরকারের হাতেই থাকবে ক্ষমতা এবং ‘প্রধানমন্ত্রী’ হিসেবে দেশকে তিনি নেতৃত্ব দেবেন বলেই মনে করছেন। 

বৃহস্পতিবার ভারুচে ‘উৎকর্ষ সমারোহে’ ভার্চুয়ালি ভাষণ দেওয়ার সময় মোদী বলেন, “একবার এক নেতার সঙ্গে সাক্ষাৎ হয়েছিল আমার। তিনি একজন অত্যন্ত সিনিয়র নেতা। তিনি আমার রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ হতে পারেন, কিন্তু আমি তাঁকে শ্রদ্ধা করি। একদিন তিনি আমার সঙ্গে দেখা করেণ, কয়েকটি ইস্যু নিয়ে কথা বলা ছিল। তখনই তিনি বলেন, ‘মোদীজি, আপনি আর কী চান? দেশ তো আপনাকে দু’বার প্রধানমন্ত্রী বানিয়ে দিল।’ তিনি ভেবেছিলেন ভেবেছিলেন দু’বার প্রধানমন্ত্রী হওয়াটা বোধহয় বড় প্রাপ্তি। কিন্তু তিনি জানতেন না মোদী কী দিয়ে তৈরি… গুজরাটের মাটিই আমাকে নির্মাণ করেছে। এখনই আমার বিশ্রাম নেওয়ার মতো কিছু হয়নি।”

এরপরই প্রধানমন্ত্রী পরিষ্কার করে দেন যে, দেশে সরকারি প্রকল্পগুলির ১০০ শতাংশ বাস্তব রূপায়ণ ঘটানোই তাঁর প্রধান উদ্দেশ্য। তার আগে তিনি কোনও ভাবেই থামতে বা বিশ্রাম নিতে চান না। এর থেকে এই বিষয়টাও আরও একবার পরিষ্কার হয়ে গেল যে, ‘প্রধানমন্ত্রী মুখ’ হিসেবে তিনি নিজেকেই আবার ভাবছেন। পাশাপাশি নরেন্দ্র মোদী এই মন্তব্যের মধ্যে দিয়ে পরোক্ষে দেশের বিরোধীদেরও বার্তা দিয়ে রাখলেন যে, ২৪ ফের কেন্দ্রের ক্ষমতায় বিজেপি সরকারই আসছে। এমনটাই মনে করছেন ওয়াকিবহাল মহল। 

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, মোদী বলেছেন, যখন তিনি প্রথমবার অর্থাৎ ২০১৪ সালে ক্ষমতায় এসেছিলেন, সেই সময় দেশের অর্ধেক অংশ শৌচাগার, বিদ্যুৎ, ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট থেকে শত যোজন দূরে ছিল। কিন্তু তারপর বিগত কয়েক বছরের প্রচেষ্টায় বহু সরকারি প্রকল্পই ১০০ শতাংশ কার্যকর হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর আরও দাবি তিনি রাজনীতি নয়, মানুষের সেবা করতেই এসেছেন।