বৃহস্পতিবার, ২৬ মে, ২০২২

লাগাম ছাড়াচ্ছে আটার দাম! মূল্যবৃদ্ধি নিয়ন্ত্রণে উল্লেখযোগ্য পদক্ষেপ কেন্দ্রের

চৈত্রী আদক

প্রকাশিত: মে ১৪, ২০২২, ১২:৩৫ পিএম | আপডেট: মে ১৪, ২০২২, ১২:৩৫ পিএম

লাগাম ছাড়াচ্ছে আটার দাম! মূল্যবৃদ্ধি নিয়ন্ত্রণে উল্লেখযোগ্য পদক্ষেপ কেন্দ্রের
লাগাম ছাড়াচ্ছে আটার দাম! মূল্যবৃদ্ধি নিয়ন্ত্রণে উল্লেখযোগ্য পদক্ষেপ কেন্দ্রের / প্রতীকী ছবি

বংনিউজ২৪×৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ বিগত কয়েক মাসে দেশজুড়ে পেট্রোপণ্য, গ্যাস সিলিন্ডারের দাম বৃদ্ধির পাশাপাশি নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসের দামও লাগামছাড়া বৃদ্ধি পেয়েছে। এবার আটার দাম বৃদ্ধিতে জেরবার সাধারণ মানুষ। সম্প্রতি আটার দাম উল্লেখযোগ্যভাবে বৃদ্ধি পাচ্ছে। গত ১২ বছরে এটাই সর্বোচ্চ দাম বলে জানা গিয়েছে। এবার আটার ক্রমবর্ধমান মূল্যবৃদ্ধির হারে লাগাম টানতে উল্লেখযোগ্য পদক্ষেপ নিল কেন্দ্র।

শনিবার কেন্দ্রের তরফ থেকে একটি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে জানানো হয়েছে, আপাতত গম রপ্তানির ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করল ভারত। সাধারণ মানুষের প্রতিদিনের খাদ্যতালিকায় ভাতের পাশাপাশি রুটিও থাকে। এছাড়াও আটা থেকে বিস্কুট, পাউরুটি, কেকের মতো খাদ্য দ্রব্যাদিও তৈরি হয়। একেই নিত্যসামগ্রির দাম বেড়েছে, তার মধ্যে আটার দাম বাড়লে দেশজুড়ে খাদ্য সুরক্ষার অভাব দেখা দিতে পারে। তাই দেশীয় বাজারে গমের দাম কমাতে কেন্দ্র এহেন সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, রপ্তানি একেবারে বন্ধ হবে না। বেশকিছু দেশের ক্ষেত্রে ছাড় দেওয়া হবে। যদি কোনও দেশে খাদ্য সুরক্ষার্থে সত্যিই গমের প্রয়োজন হয় এবং সেই দেশের কর্তৃপক্ষের তরফ থেকে যদি অনুরোধ করা হয় তাহলে বিবেচনা করে ভারত থেকে সেই দেশে গম রপ্তানি করা হবে।

যদিও এই বছর ভারতবর্ষে গম উৎপাদন অন্যান্য বছরের তুলনায় অনেকটাই কম হয়েছে। ফলে যোগানও কম। কিন্তু চাহিদা ক্রমশই বাড়ছে। কেবল দেশেই নয়, রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে গোটা বিশ্ব জুড়ে আটার চাহিদা ব্যাপকভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে। কিন্তু তুলনায় যোগান কম থাকায় আটার মূল্যবৃদ্ধি ঘটছে। তাই রপ্তানি বন্ধ করে যোগান ও চাহিদার মধ্যে সামঞ্জস্য বিধানের চেষ্টা করছে কেন্দ্র।

বিশ্বের অন্যান্য দেশে গমের যোগান এমনিতেই কম। ইউক্রেন থেকে গোটা বিশ্বে বিপুল পরিমাণ গম রপ্তানি হয়। কিন্তু যুদ্ধের কারণে তা বাধাপ্রাপ্ত হয়। ফলে বেশিরভাগ দেশই গম আমদানি করতে ভারতের দিকে ঝুঁকেছিল। ২০২২-২৩ অর্থবর্ষে ১০০ লক্ষ মেট্রিক টনের বেশি আটা রপ্তানি করেছে ভারত। ফলে স্বাভাবিকভাবেই দেশজুড়ে কিছুটা হলেও গমের সংকট দেখা দিয়েছিল।

এবার গমের রপ্তানি বন্ধ করেই আটার দাম কমাতে তৎপর হয়েছে কেন্দ্র। খুব শীঘ্রই দেশীয় বাজারে গম থেকে তৈরি যে সব সামগ্রীর দাম বৃদ্ধি পেয়েছে সেগুলির দাম কমবে। বিশেষ করে সাধারণ মানুষের খাদ্য তালিকার অন্যতম উপাদান আটার দাম অনেকটাই কমবে। দাম কমানোর পাশাপাশি দেশে গমের উৎপাদন বৃদ্ধির দিকেও নজর দিচ্ছে কেন্দ্র।