সোমবার, ১৫ এপ্রিল, ২০২৪

হাড়হিম করা ঘটনা! ধারলো অস্ত্রের এক কোপে ব্যক্তির হাত কেটে নিয়ে গেল একদল দুষ্কৃতী

আত্রেয়ী সেন

প্রকাশিত: জানুয়ারি ১০, ২০২৩, ১০:২৭ এএম | আপডেট: জানুয়ারি ১০, ২০২৩, ০৪:২৭ পিএম

হাড়হিম করা ঘটনা! ধারলো অস্ত্রের এক কোপে ব্যক্তির হাত কেটে নিয়ে গেল একদল দুষ্কৃতী
হাড়হিম করা ঘটনা! ধারলো অস্ত্রের এক কোপে ব্যক্তির হাত কেটে নিয়ে গেল একদল দুষ্কৃতী / প্রতীকী ছবি

বংনিউজ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ অমিতাভ, জয়া, ধর্মেন্দ্র, হেমা অভিনীত জনপ্রিয় হিন্দি ছবি শোলে দেখেননি এমন মানুষ সম্ভবত ভূভারতে নেই। আর এই ছবির কালজয়ী সেই ডায়লগ ‘ইয়ে হাত মুঝে দে দে ঠাকুর’ আজও সবার জলের মতো মুখস্থ। এবার সেই চির স্মরণীয় ডায়লগের সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ দৃশ্যই দেখা গেল। তবে, রিলে নয়, রিয়েল লাইফে, অর্থাৎ বাস্তব জীবনে। এক ব্যক্তির হাত কেটে নিয়ে গেল কয়েকজন অজ্ঞাত পরিচয় ব্যক্তি।

এই হাড়হিম করা ঘটনাটি ঘটেছে সোমবার হরিয়ানার কুরুক্ষেত্রে। জখম ওই ব্যক্তিকে সঙ্গে সঙ্গে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। বর্তমানে সেখানেই তিনি চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তবে, জানা গিয়েছে, ওই ব্যক্তির অবস্থা আশঙ্কাজনক। পুলিশ সূত্রে খবর, সদর পুলিশ স্টেশন এলাকার একটি হাভেলিতে গতকাল ১০ থেকে ১২ জন অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তি এক ব্যক্তির উপরে আচমকাই হামলা চালায়। তাদের হাতে ধারালো অস্ত্রও ছিল। এরপর ধারালো অস্ত্রের এক কোপেই ওই ব্যক্তির হাত কেটে নেয় ওই অজ্ঞানপরিচয় দুষ্কৃতীরা।

হাত কেটেই থেমে যায়নি তারা। ওই ব্যক্তির কাটা হাত তারা নিজেদের সঙ্গে নিয়ে যায়। এই ভয়ঙ্কর ঘটনার এক প্রত্যক্ষদর্শী জানিয়েছে যে, গুরুতর আহত ওই ব্যক্তির নাম জুগনু। তিনি ঘটনার সময় কুরুক্ষেত্র হাভেলির বাইরে বসেছিলেন। সেই সময়ই আচমকাই ১০ থেকে ১২ জন তাঁর উপরে হামলা চালায় ধারালো নিয়ে এবং হাত কেটে দেয়।

অন্যদিকে, ওই হামলার পরে সঙ্গে সঙ্গে জুগনুকে উদ্ধার করে জয় প্রকাশ নারায়ণ হাসপাতালে নিয়ে গিয়ে ভর্তি করা হয়। তাঁর অবস্থা আশঙ্কাজনক বলেই জানা গিয়েছে। পুলিশকেও গোটা ঘটনা সম্পর্কে জানানো হয়েছে। ইতিমধ্যেই তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। ওই ১০-১২ জন দুষ্কৃতীকে ধরতে এলাকায় সিসিটিভি ফুটেজ খতয়ে দেখছেন তদন্তকারীরা। এই ঘটনা প্রসঙ্গে ডিএসপি রামদূত নেইন বলেছেন, ‘দশ থেকে বারোজন লোক মুখ ঢেকে কুরুক্ষেত্র হাভেলিতে প্রবেশ করে। জুগনু নামের এক ব্যক্তির উপরে হামলা চালায় এবং তাঁর হাত কেটে দেয়। ঘটনার নেপথ্যের সঠিক কারণ এখনও অস্পষ্ট।’ ডিএসপি আরও জানিয়েছেন যে, ‘আহত ব্যক্তির বিবৃতি রেকর্ড করা হবে এবং তার ভিত্তিতেই মামলা দায়ের করা হবে। পাশাপাশি সিসিটিভি ফুটেজ স্ক্যান করা হচ্ছে।’