সোমবার, ০৮ আগস্ট, ২০২২

Zomato‍‍`র ডেলিভারি বয় সেজে কেকের বাক্সে বায়োডেটা জমা! ভাইরাল যুবকের কীর্তি

মৌসুমী মোদক

প্রকাশিত: জুলাই ৫, ২০২২, ০৭:৩০ পিএম | আপডেট: জুলাই ৫, ২০২২, ০৮:০০ পিএম

Zomato‍‍`র ডেলিভারি বয় সেজে কেকের বাক্সে বায়োডেটা জমা! ভাইরাল যুবকের কীর্তি
Zomato‍‍`র ডেলিভারি বয় সেজে কেকের বাক্সে বায়োডেটা জমা! ভাইরাল যুবকের কীর্তি

দিনের পর দিন দেশে বাড়ছে কর্মহীনের সংখ্যা। বিশেষ করে করোনাকালীন পরিস্থিতিতে এই সমস্যা আরও প্রকট হচ্ছে। উচ্চশিক্ষার পরও চাকরি পাচ্ছেন না দেশের অজস্র তরুণ-তরুণী৷ ফলে অনিশ্চয়তা ও হতাশার মধ্যেই দিন কাটছে তাঁদের। তবে কিছু কিছু জন এই হতাশা কাটিয়েই জেগে উঠছেন নতুন উদ্যোমে। চাকরির পরীক্ষা দেওয়া থেকে বায়োডেটা জমা দেওয়া সমস্ত রকমের প্রচেষ্টাই চালিয়ে যাচ্ছেন তাঁরা।

তবে এবার চাকরি পাওয়ার জন্য এই যুবক এমন কাণ্ড ঘটালেন যা আগে কেউই দেখেনি বা শোনেনি! চাকরির জন্য বায়োডাটা জমা দিতে তিনি খুঁজে বের করলেন এক অভিনব উপায়। ফুড ডেলিভারি সংস্থা জোমাট্যোর (Zomato) ডেলিভারি বয় সেজে কেকের বাক্সে নিজের বায়োডেটা জমা দিলেন ওই যুবক৷ যা দেখে কার্যত অবাক কোম্পানির কর্মকর্তারা।

জানা গিয়েছে, ওই যুবকের নাম আমন খান্ডেরওয়াল (Aman Khandelwal)। অনেক দিন ধরেই ম্যানেজমেন্ট ট্রেনির চাকরি খুঁজছেন তিনি। বহু চেষ্টার পরেও মনের মতো চাকরি খুঁজে পাননি। এরপরই এমন অভিনব বুদ্ধি তাঁর মাথায় আসে তাঁর। যেমন ভাবা, তেমনই কাজ! নিজে জোম্যাটোর ডেলিভারি বয় সেজে এরপর বেঙ্গালুরুর একটা স্টার্ট-আপ কোম্পানিতে সেই কেকের বাক্স পৌঁছে দেন। তারপর নিজেই ট্যুইটারে পোস্ট করেন সেই কীর্তি!

@AmanKhandelwall নামে নিজের ট্যুইটার প্রোফাইল থেকেই নিজের এমন কাণ্ডের কথা শেয়ার করেন ওই যুবক। সঙ্গে দু‍‍`টি ছবিও পোস্ট করেন। সেখানে দেখা যাচ্ছে একজন যুবক জোমাট্যো ডেলিভারি বয়ের পোশাক পরে দাঁড়িয়ে। অন্য ছবিটিতে, একটি বাক্সে রাখা রয়েছে দুটি কেক এবং বায়োডেটা। সেই সঙ্গে ওই বাক্সে লেখা একটি বার্তা, যা বেশ চমকপ্রদই বটে! ওই কেকের বাক্সের গায়ে লেখা, ‍‍`বেশিরভাগ বায়োডেটাই স্থান পায় ডাস্টবিনে। কিন্তু এটা আপনার পেটে স্থান পাবে।‍‍`

বলাই বাহুল্য, সোশ্যাল মিডিয়ায় এখন তুমুল ভাইরাল হয়েছে এই পোস্ট। যুবকের এমন অভিনব কীর্তি দেখে থ‍‍` হয়ে গিয়েছেন নেটিজেনরা। তবে অনেকে আবার জোমাট্যোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন। তাঁদের দাবি, এরকম ভাবে তো যে কেউই সংস্থার ডেলিভারি বয় এসে বাড়িতে আসতে পারে। এক্ষেত্রে সুরক্ষার প্রশ্ন থাকছে। যদিও এই বিষয়ে জোমাট্যোর তরফে এখনও মুখ খোলা হয়নি।