বৃহস্পতিবার, ২৬ মে, ২০২২

স্ত্রী ‘সুন্দরী’ নন, আগত সন্তানও যদি…! এই ভাবনায় স্বামী ঘটালেন ভয়ঙ্কর কাণ্ড, তারপর…

আত্রেয়ী সেন

প্রকাশিত: এপ্রিল ২৯, ২০২২, ১০:৫৭ এএম | আপডেট: এপ্রিল ২৯, ২০২২, ১০:৫৭ এএম

স্ত্রী ‘সুন্দরী’ নন, আগত সন্তানও যদি…! এই ভাবনায় স্বামী ঘটালেন ভয়ঙ্কর কাণ্ড, তারপর…
স্ত্রী ‘সুন্দরী’ নন, আগত সন্তানও যদি…! এই ভাবনায় স্বামী ঘটালেন ভয়ঙ্কর কাণ্ড, তারপর… / প্রতীকী ছবি

বংনিউজ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ বছর চার আগে পরিবারের সদস্যদের পছন্দ করা মেয়েকে বিয়ে করেছিলেন। কিন্তু এই বিয়ে নিয়ে মনে মনে খুশি ছিলেন না। কারণ স্ত্রী সুন্দরী নন। এদিকে, মাত্র তিন মাস আগেই স্ত্রী সুখবর দিয়েছিলেন। জানিয়েছিলেন স্বামীকে তাঁদের পরিবারে নতুন সদস্য আসতে চলেছে। এই খবরে বাপের বাড়ি এবং শ্বশুর বাড়ির সকলেই ভেবেছিলেন এবার হয়তো সংসারে সুখ আসবে। কিন্তু ছেলে যে মনে মনে অন্য ছক কষছে, তা ঘুণাক্ষরেও কেউ টের পাননি। 

সংসার আর সুখের হল না। রাতের অন্ধকারে সবার অলক্ষে স্ত্রীকে খাইয়ে দিয়েছিলেন বাথরুম পরিষ্কারের অ্যাসিড। স্ত্রী মারা যেতেই বাড়ি ছেড়ে পালান অভিযুক্ত স্বামী। এই ঘটনাটি ঘটেছে তেলেঙ্গানার নিজামাবাদে। পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, গত বুধবার ওই মহিলাকে অ্যাসিড খাইয়ে মেরে ফেলা হয়। এদিকে, অভিযুক্ত স্বামী পলাতক। তাঁর খোঁজে তল্লাশি শুরু হয়েছে। 

পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, নিজামাবাদের ভারনি মণ্ডলের রাজপেট এলাকার বাসিন্দা তরুণ নামক অভিযুক্ত ওই ব্যক্তির চার বছর আগে বিয়ে হয়েছিল। পরিবারের পক্ষ থেকে যে মেয়েটিকে তাঁর জন্য নির্বাচন করা হয়েছিল, সে তথাকথিত সুন্দরী না হওয়ায়, পাত্রের তাঁকে পছন্দ হয়নি। কিন্তুই পরিবারের চাপেই কল্যাণী নামক ওই তরুণীকে বিয়ে করেন তিনি। বিয়ের পর থেকে দু’জনের মধ্যে প্রায়ই অশান্তি লেগে থাকত। বাড়ি থেকে পণ আনার জন্য ক্রমাগত তাঁকে চাও দেওয়া হতো কল্যাণীকে। এমনটাই জানা গিয়েছে। 

সম্প্রতি তিন মাস আগে কল্যাণী জানান যে, তিনি অন্তঃসত্ত্বা। এরপর থেকে শুরু হয় অত্যাচার। শারীরিক নিগ্রহ। চলতি সপ্তাহের মঙ্গল্বার স্ত্রীর সঙ্গে কোনও কারণে বচসা শুরু হয় তরুণের। এরপরই তিনি রাগের মাথায় জোর করে স্ত্রী কল্যাণীকে বাথরুম পরিষ্কার করার অ্যাসিড খাইয়ে দেন। কল্যাণী অসুস্থ হয়ে পড়ায় শ্বশুরবাড়ির লোকজন তাঁকে নিজামাবাদের সরকারি হাসপাতালে নিয়ে যান চিকিৎসার জন্য। কিন্তু বুধবার সকালেই তাঁর মৃত্যু হয়। 

এরপর মেয়ের মৃত্যুতে তাঁর পরিবারের সদস্যরা পুলিশের দ্বারস্থ হন। তরুণ ও তাঁর পরিবারের বিরুদ্ধে পণের দাবিতে নির্যাতনের অভিযোগ দায়ের করা হয়। অ্যাসিড খাইয়ে মেরে ফেলার অভিযোগও করেন কল্যাণীর পরিবারের লোকজন। অভিযুক্ত ও তাঁর পরিবারের বিরুদ্ধে ৩০২, ৩০৪ বি, ৪৯৮-এ ধারায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে বলেই জানা গিয়েছে। এদিকে অভিযুক্ত স্বামী পলাতক হওয়ায়, তাঁর খোঁজে তল্লাশি অভিযান শুরু করা হয়েছে।