বৃহস্পতিবার, ০৭ জুলাই, ২০২২

সুশান্ত মৃত্যু মামলায় মিলল না স্বস্তি! মাদক মামলায় অভিযুক্তের তালিকায় নাম রিয়া ও তাঁর ভাইয়ের

চৈত্রী আদক

প্রকাশিত: জুন ২৩, ২০২২, ১২:৪৭ পিএম | আপডেট: জুন ২৩, ২০২২, ১২:৫৮ পিএম

সুশান্ত মৃত্যু মামলায় মিলল না স্বস্তি! মাদক মামলায় অভিযুক্তের তালিকায় নাম রিয়া ও তাঁর ভাইয়ের
সুশান্ত মৃত্যু মামলায় মিলল না স্বস্তি! মাদক মামলায় অভিযুক্তের তালিকায় নাম রিয়া ও তাঁর ভাইয়ের

বংনিউজ২৪×৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ বলিউড অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুত-এর মৃত্যুর দু’বছর অতিক্রান্ত। অভিনেতার মৃত্যু মামলার তদন্ত করতে গিয়ে মাদকচক্রে জড়িত থাকার অভিযোগ ওঠে সুশান্তের প্রেমিকা রিয়া চক্রবর্তী ও তাঁর ভাই শৌভিক চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে। দু’বছর পরেও মাদক মামলায় স্বস্তি মিলল না ভাই-বোনের। বুধবার মুম্বইয়ের একটি বিশেষ আদালতে এই মামলার খসরা রিপোর্ট পেশ করে এনসিবি। বিশেষ পাবলিক প্রসিকিউটর অতুল সারপান্ডে জানিয়েছেন, রিপোর্টে রিয়া ও শৌভিক সহ ৩৩ জন অভিযুক্তর নাম রয়েছে।

১৪ জুন, ২০২০, বান্দ্রার ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার হয় সুশান্ত সিং রাজপুতের ঝুলন্ত দেহ। অভিনেতার মৃত্যুরহস্য উদঘাটন করতে তদন্তে নামে সেন্ট্রাল ব্যুরো অফ ইনভেস্টিগেশন (CBI)। তদন্তের মাঝেই উঠে আসে মাদক যোগের সম্ভাবনা। মাদক মামলার তদন্তভার গ্রহণ করে নারকোটিকস কন্ট্রোল ব্যুরো (NCB)। এরপর ২০২০ সালের ৭ সেপ্টেম্বর মাদক সেবন ও পাচারের অভিযোগে গ্রেফতার করা হয় রিয়া চক্রবর্তী ও তাঁর ভাই শৌভিক চক্রবর্তীকে। এক মাস জেলে থাকার পর অক্টোবর মাসে শর্তসাপেক্ষে মুক্ত হন তাঁরা।

অন্যদিকে রিয়ার বিরুদ্ধে আত্মহত্যায় প্ররোচনার মামলা করেন সুশান্তের বাবা কেকে সিং। সুশান্তের ব্যাঙ্কে থাকা কোটি কোটি টাকা নয়ছয় করার অভিযোগ ওঠে তাঁর বিরুদ্ধে। সুশান্তের টাকা বেহিসেবি খরচ করতেন রিয়া, এমন অভিযোগ তোলেন সুশান্তের বন্ধু সিদ্ধার্থ পৈঠানিও। এরপর এই বিষয়টি নিয়ে তদন্ত শুরু করে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ED)।

বুধবার মুম্বইয়ের আদালতে উপস্থিত হন রিয়া, শৌভিক সহ অন্যান্য অভিযুক্তরা। সরকারি আইনজীবী অতুল সারপন্ডে জানান, চার্জশিটে উল্লিখিত অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে সমস্ত অভিযোগ বহাল থাকছে। তবে মাদককাণ্ডে জড়িত প্রত্যেক অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে চার্জশিট গঠন করার কথা থাকলেও তা সম্ভবপর হয়ে ওঠেনি। কারণ অভিযুক্তদের অনেকেই আদালতে অভিযোগ খারিজের আবেদন জানিয়েছেন। যতক্ষণ না সেই মামলার নিষ্পত্তি হচ্ছে ততক্ষণ চার্জশিট গঠন করা যাবে না। বিচারক ভিজি রঘুবংশী আগামী ১২ জুলাই মামলার পরবর্তী শুনানির তারিখ ঘোষণা করেছেন।